কোষাগার নিয়ে চিন্তিত কলকাতার মেয়র

Spread the love

  নিজস্ব প্রতিবেদন: গত দু’বছর ধরে করোনার ধাক্কায় বেহাল দশা কলকাতা পুরসভার কোষাগারের। সঠিক উপায়ে রাজস্ব আদায় তো হচ্ছেই না তার উপর পেনশন দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন পুর-কর্তৃপক্ষ। এই অবস্থায় বুধবার মেয়র ফিরহাদ হাকিম ২০২২-’২৩ অর্থবর্ষের জন্য ১৭৭ কোটি টাকার ঘাটতি বাজেট পেশ করলেন। গত অর্থবর্ষের বাজেটে ঘাটতি ছিল ১৬১ কোটি টাকা। কিন্তু বাস্তবে সেই ঘাটতি সংশোধিত হয়ে বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ৫৮০ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকায়। এবারের বাজেটে ৪,২৩৩ কোটি ১১ লক্ষ টাকা আয়ের লক্ষমাত্রা রাখা হয়েছে। যদি ঘাটতির পরিমাণ দিন দিন বাড়তে থাকে তাহলে জনপরিষেবার জন্য খরচ বৃদ্ধির বিশেষ উল্লেখ নেই পুর বাজেটে। এবিষয়ে নিয়ে মেয়র জানান, ১৭৭ কোটি টাকা সহ ২০২২-’২৩ অর্থবর্ষে পুরসভার ক্রমপুঞ্জীভূত ঘাটতি হবে ২৬০০ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা। যা নিয়ে চিন্তিত পুর অর্থ দফতরের আধিকারিকেরা। এই প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, ‘‘কোভিডের প্রথম ধাক্কা সামলাতে না সামলাতেই আমরা দ্বিতীয় ও তৃতীয় ঢেউয়ের সম্মুখীন হয়েছিলাম। যার জন্য আশানুরূপ কর আদায় হয়নি।’’ উল্লেখ্য, বিভিন্ন বিভাগ থেকে রাজস্ব সংগ্রহের পাশাপাশি সরকারি অনুদান পুর আয়ের অন্যতম উৎস। বাজেট বিবৃতি অনুযায়ী, বিগত বছরে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় সরকারি অনুদান কমার পাশাপাশি কমেছে পুরসভার নিজস্ব আয়ও। তাই আধিকারিকরা মনে করছেন, রাজস্ব আদায় না-বাড়ালে ঋণ আরও বাড়বে।
Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।